Here Is 8 Easy Way To Earn Money Online | ৮টি সহজ উপায়ে ঘরে বসে অনলাইনে আয় করুন

Here Is 8 Easy Way To Earn Money Online | ৮টি সহজ উপায়ে ঘরে বসে অনলাইনে আয় করুন।


How-To-Earn-Money-Online


বর্তমানে ইন্টারনেট মানুষের জীবনে বড় দরনের প্রভাব ফেলেছে। তার অন্যতম দিক হচ্ছে  অনলাইন আর্নিং। মানুষ এখন অনলাইনে আয়ের জন্য বিভিন্ন ধরনের কৌশল প্রয়োগ করছে। অনলাইনে আয় করার জন্য বিভিন্ন পথ রয়েছে। এবং কিছু নিয়ম রয়েছে।

যেমনঃ সঠিক প্ল্যাটফরম ধরে কাজ করা, যে কোন বিষয়ের উপর জ্ঞান থাকা, কম্পিউটারের উপর বেসিক জ্ঞান থাকা, এবং সঠিক গাইড লাইন ফলো করা।

অনলাইনে আয় করার বিভিন্ন রকম সুযোগ থাকলেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে প্রতারণার শিকার হতে হয়। এই ধরনের প্রতারণা থেকে রক্ষা পেতে কিছু সঠিক গাইড লাইন ফলো করতে হবে। গাইড লাইন গুলো এবং ৮টি ওয়েবসাইট ও রিসোর্স আছে এগুলো থেকে আপনারা সহজে আয় করতে পারেন।

জেনে নিন ৮টি ওয়েবসাইট ও রিসোর্স সম্পর্কে যার মাধ্যমে সহজে ঘরে বসে আয় করতে পারবেন।

১| ফ্রিল্যান্সিং করে আয় - How To Earn Money From Freelancing


How-To-Earn-Money-Online


অনলাইনে আয়ের মধ্যে ফ্রিল্যান্সিং অন্যতম জনপ্রিয় সাইট। কারন এই সাইট থেকে সহজে আয় করা যায়। নিজের ইচ্ছা মতো কাজ করা যায়।বর্তমানে পার্ট টাইম হিসাবে অনেকেই ফ্রিল্যান্সিংয়ের সাথে জড়িত।

ফ্রিল্যান্সিংয়ে বিভিন্ন ধরনের কাজ রয়েছে।
যেমন: ফটোগ্রাফি, ওয়েব ডিজাইনিং, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, সাইট রিভিউং, উল্লেখযোগ্য

এইসব কাজের জন্য দক্ষতার উপর ভিত্তি করে ফ্রিল্যান্সারদের কাজ দিয়ে থাকে জনপ্রিয় কয়েকটি ওয়েবসাইট। সেখানে একাউন্ট খুলে কাজের দক্ষতা ও বিবরণ দিয়ে কাজের জন্য আবেদন করতে হয়। তারপর কাজদাতা বা ক্রেতারা ফ্রিল্যান্সারদের সাথে যোগাযোগ করে প্রয়োজন মতো কাজ দেয়। ওয়েবসাইট গুলো হচ্ছে
যেমনঃ

১। ফাইভার - Fiverr

২। আপওয়ারর্ক - UpWork

৩। ফ্রিল্যান্সার - Freelancer

৪। পিপল পার আওয়ার - People Per Hour

এই সব সাইট থেকে ঘন্টায় ৫ থেকে ১০০ ডলার পর্যন্ত আয় করা যায়। কাজ শেষে সাইট গুলোর অনুমিত দেওয়ার পরে ক্রেতারা অর্থ প্রদান করে থাকে। এসব সাইটে উন্নতি বা রেটিং বাড়ানোর জন্য গ্রাহকদের ফিডবেক পাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই যতক্ষন গ্রাহকদের কাজ পছন্দ না হয় ততক্ষণ পর্যন্ত গ্রাহকদের কাজ করে দিতে হয়।

পেমেন্ট মেথড - Payment Method:

এইসব সাইটে গুলো কয়েকটি জনপ্রিয় সাইটের মাধ্যমে পেমেন্ট দিয়ে থাকে। যেমনঃ

১। পেওনিয়ার - Payoneer

২। পেপাল - Paypal

৩। নেটলার - Neteller

৪। স্ক্রিল - Skrill

ফ্রিল্যান্সারদের অবশ্যই এই সাইট গুলোর মধ্যে যে কোন একটিতে একাউন্ট থাকতে হবে পেমেন্ট নেওয়ার জন্য। এবং এই একাউন্টের সাথে ব্যাংক একাউন্ট এড করে যে ওয়েবসাইটে কাজ করবে ওই ওয়েবসাইটের সাথে যুক্ত করতে হবে।


২| ওয়েবসাইট / ব্লগিং থেকে আয় - Earn Money From Blogging / Website


How-To-Earn-Money-Online


ব্লগিং - Bloging

যদি আপনার যে কোনো বিষয়ের উপর লেখা -লেখি করার আগ্রহ থাকে। তাহলে সে আগ্রহকে আপনি পেশা হিসাবে নিয়ে অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন ব্লগিং করে। ব্লগিং থেকে আয় করতে হলে আপনাকে একটি ওয়েবসাইট সাইট খুলতে হবে। ওয়েবসাইট ফ্রিতে খুলা যায় আবার কিনাও যায় । ফ্রিতে ব্লগার - Blogger.com a ওয়েবসাইট খুলতে পারেন ব্লগারে কিছু সেটিং আছে পরিবর্তন করা যায় না নিজের ইচ্ছা মতো। কিন্তু কিনলে সব নিজের মতো করে সেটিংস করা যায়। ব্লগিং করে কিন্তু রাতা রাতি আয় করতে পারবেন না। ব্লগিং থেকে আয় করতে হলে ধৈর্য থাকতে হবে। ব্লগ থেকে ভাল আয় করতে হলে নিয়মিত কন্টেন্ট আপলোড করতে হবে।


ওয়েবসাইট - Website

বর্তমানে সম্পূর্ণ ফ্রিতে নিজের জন্য একটি ওয়েবসাইট খুলার জন্য অনলাইনে অনেক সাইট রয়েছে তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ব্লগার ডটকম - Blogger.com এখানে আপনার এক টাকাও খরচ করতে হবে না। ব্লগার - Blogger সম্পূর্ণ গুগলের - Google প্রোডাক্ট। ব্লগারে আপনারা ডোমেইন, টেম্পলেট, হোস্টিং সব কিছু ফ্রিতে পাবেন। আপনি ওয়েবসাইট নতুন কাজ শুরু করলে আগে ব্লগারে কাজ করে অভিজ্ঞাতা অর্জন করতে পারেন।

আর আপনি যদি চান যে আপনি প্রোপেশানাল ভাবে শুরু করতে তাহলে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস - Wordprees এ শুরু করতে পারেন। কিন্তু আপনাকে এইখানে সব কিছু কিনতে হবে হোস্টিং, ডোমেইন, টেম্পলেট, সব কিনতে হবে।


পেমেন্ট মেথড - Payment Method

ব্লগার- Blogger / ওয়ার্ডপ্রেস Wordprees দুইটা থেকেই গ্রাহকদের, পাঠকদের, বিভিন্ন কন্টন্টের মাধ্যমে সেবা দেওয়ার পাশা পাশি গুগল
অ্যাডসেন্স ও বিভিন্ন এড নেটওয়ার্কের এড শো করে

যেমনঃ

১। গুগল অ্যাডসেন্স - Google Adsense

২। প্রোপেলার এডস - Propellerads


৩। অ্যাডস্ট্রা - Adsterra

৪। মিডিয়া ডট নেট - Media.Net


এইসব এড নেটওয়ার্কের এড/ বিজ্ঞাপন আপনার
ওয়েবসাইটে দেখানো হবে এবং এড গুলোতে ক্লিক পরবে। তখন এড দেখানো ও ক্লিক পরার মাধ্যমে ইনকাম হবে। ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বা ভিউয়ার যত বেশি হবে আয়ের পরিমাণ তত বেশি হবে।

৩| ইইউটিউব থেকে আয় - How To Earn Money From From Youtube 


How-To-Earn-Money-Online


অনলাইনে আয়ের অন্যতম আরেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম হল ইউটিউব। এখানে আপনি যদি কোন বিষয়ের উপর পারদর্শী হন সে বিষয়ের উপর ভিডিও তৈরি করে ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন। এছাড়াও আপনি ইউটিউবে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও আপলোড করতে পারেন তার জন্য আপনাকে নির্দিষ্ট কোন বিষয়ের উপর পারদর্শী হতে হবেনা। শুধু ক্যামরার সামনে ভালভাবে কথা বলতে হবে এবং ভিউয়ার দেরকে বুঝানোর ক্ষমতা থাকতে হবে। বাকিটা ইউটিউবে অন্যদের ভিডিও দেখে শিখতে পারবেন। ইউটিউব থেকেও রাতা- রাতি আয় করতে পারবেন না। ব্লগিংয়ের মতো ধৈর্য্য ধরে কাজ করতে হবে।

অনেকে মনে করেন ইউটিউবার হতে হলে অনেক অর্থ লাগে অনেক সরাঞ্জাম লাগে ক্যামরা, লাইট, আরো অনেক কিছু কিন্তু ধারণাটি সম্পূর্ণ ভুল। অথচ বর্তমানে যত সফল ইউটিউবার আছে তার মধ্যে বেশিরভাগই ইউটিউবার কোন খরচ ছাড়া ইউটিউবিং শুরু করছ।
তাই প্রথমে স্টুডিও দিয়ে ভিডিও শুরু করার চিন্তা না করে। হাতে যে স্মার্টফোনটি আছে সেটা দিয়ে
ভিডিও করা শুরু করে দিতে পারেন। ইউটিউবে সফল হতে চাইলে নিয়মিত ভিডিও আপলোড দিতে হবে। অবশ্য ভিডিও ইডিটিং শিখতে হবে।এবং যে বিষয়ের উপর মানুষের আগ্রহ বেশি ওই বিষয়ের উপর ভিডিও তৈরি করুন তাহলে দ্রুত সফল হবেন।



পেমেন্ট মেথড - Payment Method

ইউটিউবে ও ইনকাম হচ্ছে ওয়েবসাইটের মতো গুগল অ্যাডসেন্সের এড শো করে। গুগল অ্যাডসেন্সের ভিবিন্ন এড গুলো আপনার ভিডিও মধ্যে শো করবে। এভাবে এড এর মধ্যে ক্লিক ও এড শো করে আয় করা যায়। ভিউয়ার যতো বেশি হবে আয় তত বেশি হবে।


৪| অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং - How To Earn Money In Affiliate Marketing


How-To-Earn-Money-Online



অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বর্তমানে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। কারণ এখানে ইনকাম করা অনেক সহজ কোন রকম পরিশ্রম করা ছাড়া। আপনার যদি একটি ওয়েবসাইট বা একটি ইউটিউব, অথবা আপনার যদি যে কোন সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট থাকে এবং সেখানে আপনার মোটামুটি ভাল অডিয়েন্স থাকে থাহলে আপনি তাদের সাথে ভিবিন্ন জনপ্রিয় ই-কমার্স সাইটের লিংক শেয়ার করে ইনকাম করতে পারেন। জনপ্রিয় ইকমার্স সবাট গুলো হল

১। অ্যমাজন - Amazon

২। দারাজ - Daraz

৩। বিডি -শপ - BDShop

৪। বাগডুম - Bagdoom

৫। পিকাবো - Pickaboo



পেমেন্ট মেথড - Payment Method

আপনি এইসব সাইটের লিংক যখন আপনার ইউটিউব, ওয়েবসাইট, অথবা সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে শেয়ার করবেন। তখন ঐ লিংকে কেউ ক্লিক করে যদি ঐসব ই-কমার্স সাইট থেকে পণ্য কিনে তখন ঐ পণ্যের বিক্রিয়ের উপর একটা পারচেন্টজ আপনাকে দিবে।



৫| ফেসবুকের মাধ্যমে আয় - Earn Money From Facebook


How-To-Earn-Money-Online

ফেসবুক এখন শুধু বন্ধুদের সাথে যোগাযোগের জন্য নয়। ফেসবুক থেকে এখন অনেক ভাবে আয় করা যায়। আপনার যদি ফেসবুকে একটি পেজ থাকে এবং সেখানে যদি আপনার ফেন ফলোয়ার বেশি থাকে তাহলে আপনি সেখানে ইউটিউব এর মতো ভিডিও আপলোড করে ইনকাম করতে পারবেন। ইউটিউব থেকেও ফেসবুকে আয় অনেক বেশি। এবং ইউটিউব থেকে ফেসবুকে ব্যাবহারকারী বেশি হওয়ায় এখানে সফলতা তাড়াতাড়ি পাওয়া যায়। ইউটিউবের তুলনায় ফেসবুকে প্রতিযোগী অনেক কম। ফেসবুকে ও আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে পারবেন।


৬| কন্টেন্ট রাইটিং - How To Earn Money From From Content Writing 


যাদের লেখালেখির প্রতি আগ্রহ আছে অথবা একাধিক ভাষায় লিখতে পারেন। তাদের কাজের জন্য বসে থাকতে হয়না। অনলাইনে প্ল্যাটফর্মগুলোতে এই ধরনের লেখালিখির উপরে অনেক সাইট রয়েছে। তারা তাদের ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট লেখার জন্য কাজের লোক নিয়োগ দিয়ে থাকে। কন্টেন্ট লেখা উপর ভিত্তি করে কাজদাতা অর্থ প্রদান করে থাকে। কন্টেন্ট রাইটিং যত ভাল হবে আয় তত বেশি হবে।


৭| পিটিসি - How To Earn Money From From PTC


কিছু ওয়েবসাইট আছে যেখান থেকে ইনকাম করা অনেক সহজ। ওয়েবসাইট গুলোতে গিয়ে শুধু বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে আয় করতে পারবেন। এই ভাবে আয় করাকে পিটিসি বলে। এই সাইট গুলোতে ইনকাম করার আগে একাউন্ট খুলতে হয়। পিটিসি সাইট গুলো বেশিরভাগ ভূয়া হয়। তাই কাজ করার আগে সব কিছু চেক করে নিবেন। এই সাইট গুলো থেকে রেফার করেও ইনকাম করতে পারবেন।


৮| গ্রাফিক্স ডিজাইন - How To Earn Money From From Graphics Design 


অনলাইনে ঘরে বসে আয় করার জন্য গ্রাফিক্স ডিজাইন অন্যতম উপায়। যারা এই কাজে অভিজ্ঞ তারা বিভিন্ন ডিজাইন অনলাইনে মার্কেটপ্লেস গুলোতে দিয়ে রাখেন। এবং ডিজাইন গুলো ক্রেতাদের পছন্দ হলে তারা সেটা কিনে। এভাবে গ্রাফিক্স ডিজাইন থেকে আয় হয়। একটি ডিজাইন একবার বিক্রি হয়ে গেলে শেষ না। একটা ডিজাইন অনেকবার সেল হয়। বর্তমানে গ্রাফিক্স ডিজাইনের অনেক চাহিদা রয়েছে।

Post a comment

2 Comments