Sajek Valley Tour 2019 | স্বল্প খরচে সাজেক ভ্রমনের টিপস

Sajek Valley Tour 2019 | স্বল্প খরচে সাজেক ভ্রমনের টিপস


Sajek Valley Tour 2019, Cheapest -sajek- Tour


মেঘের রাজ্য সাজেক ভ্যালি যেখানে মেঘ এসে নিজেই হাতের কাছে ধরা দেয়। পাহাড়, ঝর্ণা, মেঘ আর নীল আকাশের রাজ্য সাজেক। যেখানে প্রকৃিতর সাথে মেঘ-সূ্র্যের লুকোচুরি চলে ভরপুর।
প্রকৃিতর এমন কিছু অমায়িক রুপ দেখবেন যা আপনি চাইলেও কখনো ভুলতে পারবেন না। মেঘ পাহাড় আর সূ্র্যের দোলাচলে আপনি মূহের্ত হারিয়ে যেতে পারেন স্বর্গের রাজ্যে।


১| সাজেক সম্পর্কেঃ
Sajek Valley Tour 2019, Cheapest -sajek- Tour
Sajek Valley 


সাজেক ভ্যালি রাঙ্গামাটির জেলার ভারতের মিজোরাম সীমান্তের পাশে অবস্থিত। সাজেক হলো বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ইউনিয়ন, যার আয়তন ৭০২ বর্গমাইল। সাজেক এর উত্তরে ভারতের ত্রিপুরা, দক্ষিনে রাঙ্গামাটির লংগদু, পূর্বে ভারতের মিজোরাম, পশ্চিমে খাগড়াছড়ির দীঘিনালা। সাজেক রাঙ্গামাটি জেলায় অবস্থিত হলেও এর যাতায়াত সুবিধা খাগড়াছড়ি এর দীঘিনালা দিয়ে। খাগড়াছড়ি শহর থেকে সাজেক এর দূরত্ব ৭০ কিলোমিটার। সাজেকের প্রথম গ্রাম রুইলুই পাড়া যার উচ্চতা ১৮০০ ফুট। এর প্রবীণ জনগোষ্ঠী লুসাই। ১৮৮৫ সালে এই পাড়া স্থাপিত হয়।

২| সাজেকের দরর্শনীয় স্থান সমূহঃ


[ ] কংলাক পাহাড়
Sajek Valley Tour 2019, Cheapest -sajek- Tour

সাজেকের প্রধান আকর্ষণ হল কংলাক পাহাড় সাজেকের শেষ গ্রাম কংলাক পাড়া। কংলাক পাহাড় থেকে ভারতের লুসাই পাহাড় দেখা যায়।যেখান থেকে কর্ণফুলি নদী উৎপন্ন হয়েছে।

[ ] হ্যালিপ্যাড
Sajek Valley Tour 2019, Cheapest -sajek- Tour

সাজেকে ২টি হ্যালিপ্যাড রয়েছে। যেখান থেকে সূর্যাস্ত - সূর্যদয় দেখা যায়।

[ ] কমলক ঝর্ণা
সাজেক ভ্যালির রুইলুই পাড়া থেকে দুই থেকে আড়াই ঘণ্টার ট্রেকিং করে কমলক ঝর্ণায় যাওয়া যায়।

[ ] হাজচাড়া ঝর্ণা
Sajek Valley Tour 2019, Cheapest -sajek- Tour

সাজেক থেকে ফিরার সময় হাজচাড়া ঝর্ণা পরে।এই ঝর্ণাটি খুবই অপরুপ দেখলেই মন জুড়িয়ে যায়।

[ ] খাগড়াছড়ি শহর
Sajek Valley Tour 2019, Cheapest -sajek- Tour


খাগড়াছড়ি শহর এবং শহরের আশেপাশে অনেক প্লেস আছে ঘুরার মতো, তার মধ্যে অন্যতম হচ্চে আলুটিলা গুহা, তারেং হ্যালিপ্যাড, রিসাং ঝর্ণা, ঝুলন্ত ব্রিজ।


৩| সাজেকে কিভাবে যাবেনঃ


ঢাকা থেকে খাগড়াছড়ি পর্যান্ত বাসে। বাস ভাড়া পরবে ৬০০ - ১৫০০ টাকা পর্যান্ত। খরচ কমাইতে চাইলে আপনারা ট্রেনে ও আসতে পারেন ট্রেনে ভাড়া পরবে ১২০ - ৩৫০ টাকা চট্রগ্রাম পর্যান্ত।
তারপরে আপনারা চট্রগ্রাম শহরের অক্সিজেন বাস স্টেন্ড থেকে খাগড়াছড়ির বাস পেয়ে যাবেন। বাস ভাড়া পরবে ১২০ - ২৫০ টাকা। যারা চট্রগ্রাম থেকে সাজেক যেতে চাচ্ছেন তারাও এই রুটে যেতে পারবেন।
বাস থেকে নেমে চাঁদের গাড়ি বা সিনজি করে সাজেক যেতে পারবেন। অবশ্যই সকাল ৭- ৮ এর মধ্যে খাগড়াছড়ি পৌছাতে হবে কারণ।

খাগড়াছড়ি থেকে সাজেকের উদ্দেশ্য গাড়ি ২টা ইস্কুটে ছেড়ে যায়।

১ম ইস্কুটে গাড়ি চাড়ে সকাল ১০:৩০ মিনিটে

২য় ইস্কুটে গাড়ি চাড়ে বিকাল ৩:৩০ মিনিটে

ফিরার সময়ে একই টাইমে গাড়ি ফিরে আসে।

চাঁদের গাড়ির রিজার্ব ভাড়া পরবে ৭৫০০ টাকা সাজেক ১দিন থাকা সহ এবং খাগড়াছড়ির সব টুরিস্ট প্লেস গুলা ঘুরে দেখাবে

আর সিনজি রিজার্ব ভাড়া পরবে ৩৫০০ টাকা সিনজি ও সেইম



৪| সাজেকে কোথায় থাকবেনঃ


সাজেকে থাকার জন্য অনেক রিসোর্ট, কটেজ রয়েছে। অন সিজনে সাজেক গেলে অবশ্যই আগে থেকে বুকিং দিয়ে যাবেন। অফ সিজনে গেলে বুকিং দিতে হবেনা। চাইলে ওখানে আদিবাসিদের বাড়িতে ও থাকা যায়।
ভালো ভিউ পাওয়া যায় এমন কয়েকটা রিসোর্ট হল মেঘ মাচাং, মেঘ পুঞ্জি, জুম ঘর, মেঘ কাব্য।
১০০০ থেকে শুরু করে ১০০০০ টাকার পর্যান্ত রিসোর্ট পাওয়া যায়।


৫| সাজেকে কোথায় খাবেনঃ


সাজেকে খাওয়ার জন্য অনেক হোটেল রয়েচে। তবে অবশ্যই খাওয়ার মিনিমাম ১ ঘ্নটা আগে অর্ডার করতে হবে। সাজেকে প্রতিবেলা খাওয়ারে বিভিন্ন প্যাকেজ সিস্টেমে পাওয়া যায়
প্রতিবেলা খাওয়ার প্যাকেজ ১২০ - ২০০ এর মধ্যে পাওয়া যাবে। সাজেকে পানির অনেক দাম তাই খাগড়াছড়ি শহর থেকে পানি কিনে নিয়ে যাবেন।



বি:দ্রঃ বিশেষ কিছু টিপস


[ ] সাজেকে যাওয়ার সময় অবশ্যই আইডি কার্ড নিয়ে যাবেন।

[ ] খাগড়াছড়ি থেকে যথেষ্ট পরিমাণ পানি কিনে নিয়ে যাবেন কারণ সাজেকে পানির দাম অনেক বেশি দাম

[ ] সাজেকে বিদ্যুতের কোনো ব্যবস্থা নেই। তাই সাথে করে পারলে পাওয়ার ব্যাংক নিয়ে যাবেন। তবে সন্ধা ৬টা থেকে রাত ১১টা পর্যান্ত জেনেটারের মাধ্যমে রিসোর্ট গুলোতে বিদ্যুত সাপ্লাই দেয়া হয়।

[ ] খুব ভোরে উঠে সাজেকের অপরূপ সৌন্দর্য দেখতে ভুলবেন না।

[ ] বিকালের দিকে কংলাক পাহাড়ে গিয়ে সূর্যস্ত দেখবেন। আপনাদের ভাড়া গাড়ি আপনাদেরকে কংলাক পাহাড় নিছে নিয়ে যাবে।

Post a comment

4 Comments